ম্যাজিক গ্রোথ : মিশ্র তরল সার

১) ম্যাজিক গ্রোথ কি?

জনাব আরিফ খান বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএডিসি এর একজন কর্মকর্তা, একজন কৃষিবিদ এবং শখের বসে দীর্ঘ ১৬ বছর গবেষণার মাধ্যমে ২০০৬ সালে দেশের প্রেক্ষাপটে প্রথম একটা কার্যকর মিশ্র তরল সার উদ্ভাবন করতে সক্ষম হন।  ম্যাজিক গ্রোথ হলো উদ্ভিদের ১৩টি অত্যাবশ্যকীয় খনিজ খাদ্য উপাদান (N, P, K, Ca, Mg, S, Cu, Fe. B, Zn, Mn, Mo, Cl) এবং কিছু বেনিফিসিয়ারী উপাদানে সম্বৃদ্ধ বাংলাদেশে প্রথম উদ্ভাবিত একটি মিশ্র তরল সার যা দীর্ঘ ১৬ বছর মাঠপর্যায়ে নিবিড় গবেষণার মাধ্যমে ২০০৬ সালে উদ্ভাবন করতে সক্ষম হয়েছি ইনশাআল্লাহ।বিষয়টি আমি ২০১০ সালে রাষ্ট্রকে অবহিত করেছি যে, এখন থেকে এমন মিশ্র তরল সার বিদেশ থেকে আর আমদানী করতে হবে না। আমরা আমাদের দেশে বিদেশের চাইতে উন্নতমানের মিশ্র তরল সার তৈরী করতে পারব। এখানে একটি বিষয় উল্লেখ করা সমীচিন মনে করছি তা হলো, দেশে মিশ্র তরল সারের ব্যবহার তৎকালীন সম্মানিত গবেষক এবং নীতিনির্ধারক পর্যায়ের সিদ্ধান্তের আলোকে ১৯৯৭ সাল থেকে আমদানীর মাধ্যমে চালু করা হয়।কিন্তু ২০১৩ সালে এসে দেশের বর্তমান সময়ের সম্মানিত গবেষকদের পরামর্শ মোতাবেক তা বন্ধ করা হয়েছে)। দেশের প্রেক্ষাপটে আমি প্রথম একটি মিশ্র তরল সার উদ্ভাবন বিষয়ে স্বীকৃতি প্রত্যাশা করেছি।

সাম্প্রতিক সময়ে কানাডা প্রবসী একজন কৃষিবিদ মৃত্তিকা বিজ্ঞানী, ফোলিযার ফিডিং বিষয়ের গবেষক এবং কানডার একটি খামারে কর্মরত জনাব খালেদ নাসিমুল বারি নোবেলকে আমার ম্যাজিক গ্রোথ প্রযুক্তির বিষয়টি নিয়ে কানাডাতে গবেষণা করার প্রস্তাব দিলে তিনি ম্যাজিক গ্রোথের রাসায়নিক বিশ্লেষণ দেখে ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করেন যে “Ó I wish I could use your product.. But due to regulation I can’t. It’s a good product in world standard.”. তিনি আমার গবেষণার বিষয়ে মন্তব্য করেন Ò.——As population is increasing , we have to also increase our food production from the same amount of land. It’s the time to think how we can increase food production by a small tweaking or approaches. We have dynamic and talented Agriculturist, we could do better in future. Finally I would like to thank Arif Khan for his eye opening approaches and his dedication to do something out of box.”
আমার গবেষণা সংক্রান্ত বিষয়ে তিনি একটি লেখা কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ পেজে প্রেরণ করেছেন বলে জানান। উপরের লেখাটির শেষ অংশটুকু তারই অংশ বিশেষ। উদ্ভাবিত তরল সার ম্যাজিক গ্রোথ যে একটি অতিমাত্রায় কার্যকর তরল সার তা দেশে আমদানীকৃত ৬টি তরল সারের (ভকাসাল সুপার, ওকজিম ক্রপ প্লাস,জিঙ্ক সালফেট, নিউগল, এস্টাসাল্ফ এবং লিকুইড গোল্ড) এর রাসায়নিক বিশ্লেষণের সাথে তুলনা করলে সহজেই তা বোঝা যায়।আর মাঠের ফলাফল তো রয়েছেই।

২) ম্যাজিক গ্রোথ প্রযুক্তি কি?

উদ্ভাবিত তরল সার ম্যাজিক গ্রোথের কৌশলগত ব্যবহারকেই ম্যাজিক গ্রোথ প্রযুক্তি বলে আখ্যায়িত করেছি। যেমন অতিরিক্ত পরিপূরক হিসাবে ব্যবহারের মাধ্যমে ফসলের ফলন বৃদ্ধির জন্য প্রতি লিটার পানিতে কিছু ম্যাজিক গ্রোথ মিশিয়ে যেমন ব্যবহার করা হয় তেমন কোন কোন ফসলে ম্যাজিক গ্রোথের সাথে কিছু ইউরিয়া এবং পটাশ মিশিয়েও ব্যবহার করা হয়। আবার ৩০-৪০% ইউরিয়া সাশ্রয় করে ফসল উৎপাদনের সময় ম্যাজিক গ্রোথের সাথে ইউরিয়া এবং পাটাশের মাত্রা অধিক পরিমান বৃদ্ধি করেও ব্যবহার করা হয়।

কৃষি মন্ত্রণালয়ের নিরদেশনা মোতাবেক ম্যাজিক গ্রোথের কার্যকারিতার বিষয়টি এসময়ে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা প্রতিস্টানে প্রতিষ্ঠানে পরীক্ষাধীন রয়েছে। আশা করি ফলাফল অচিরেই উপস্থাপিত হবে।আমার এ উদ্ভাবনের বিষয়টি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মগোদয়ের দপ্তরের গভর্নেন্স ইনোভেশন ইউনিটও অবহিত রয়েছেন।

We will be happy to hear your thoughts

Leave a Reply

Logo
Reset Password
Compare items
  • Total (0)
Compare
0