বারি বাতাবিলেবু-৪

বারি বাতাবিলেবু-৪

বৈশিষ্ট্য : উচ্চ ফলনশীল মাঝ মৌসুমী জাত। গাছ মাঝারী, ছড়ানো। ফল গোলাকার, পাকা ফলের রং হলুদ এবং গড় ওজন ৮৮০ গ্রাম। শাঁস সাদা, মধ্যম রসালো, নরম, খুব মিষ্টি (টিএসএস ১১.২%) ও তিতাবিহীন। ফলের কোষ খুব সহজে আলাদ করা যায়। খাদ্যেপযোগী অংশ ৫৮%।
উপযোগী এলাকা  : দেশের সর্বত্র চাষ উপযোগী।
বপনের সময়  : মধ্য জ্যৈষ্ঠ-মধ্য আশ্বিন (জুন-সেপ্টেম্বর) মাস চারা রোপণের উপযুক্ত সময়। তবে অধিক বৃষ্টিপাতের সময় চারা/কলম রোপণ না করাই ভাল। সেচ সুবিধা থাকলে সারা বছরই বাতাবিলেবুর চারা/কলম রোপণ করা চলে।
মাড়াইয়ের সময়:  ফলের উপরিভাগ খসখসে থেকে পরিবর্তিত হয়ে তেলতেলে ভাব এবং ফল কিছুটা হলদে বর্ণ ধারণ করলে মধ্যভাদ্র থেকে মধ্য কার্তিক (সেপ্টেম্বর-অক্টোবর) পর্যন্ত ফল সংগ্রহ করা যায়।
ফলন: ১৫-২০ টন/হেক্টর

 রোগবালাই ও দমন ব্যবস্থা

 রোগবালাই: 
ডাইব্যাকঃ আক্রান্ত গাছের পাতা ঝরে যায় এবং কচি ডাল আগা থেকে শুকিয়ে মরে যেতে থাকে।
গামোসিসঃ এ রোগের আক্রমণে গাছের কান্ড, ডাল বাদামি রংয়ের হয়ে যায় ও ডালে লম্বালম্বি ফাটল দেখা দেয় এবং ফাটল থেকে আঠা বের হতে দেখা যায়।
 দমন ব্যবস্থা: 
ডাইব্যাক প্রতিকারঃ আক্রান্ত ডাল কেটে ফেলা এবং কর্তিত অংশে বর্দোপেস্ট লাগানো ভাল। আক্রান্ত গাছে ইন্ডোফিল এম-৪৫ বা ম্যানকোজেব (০.২%) অথবা বর্দোমিশ্রন (১%) স্প্রে করতে হবে।
গামোসিস প্রতিকারঃ আক্রান্ত ডাল কেটে ফেলে অথবা আক্রান্ত অংশ চেঁছে ফেলে বর্দোপেষ্ট ব্যবহার করা উচিত। পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করা ও সেচের পানি গাছের কান্ড ম্পর্শ করা থেকে বিরত রাখা ভাল।

 পোকামাকড় ও দমন ব্যবস্থা

 পোকামাকড়: 
পাতার ছোট সুড়ঙ্গ পোকা (সাইট্রাস লিফমাইনার) : এ পোকার ক্ষুদ্র কীড়াগুলো পাতার উপরিভাগে আঁকা-বাঁকা সুড়ঙ্গ করে সবুজ অংশ খেয়ে ফেলে। এতে পাতা কুঁকড়ে বিবর্ণ হয়ে শুকিয়ে ঝরে যায়। অবশেষে গাছের বৃদ্ধি বন্ধ হয়ে যায়।
লেবুর প্রজাপতি পোকা (লেমন বাটারফ্লাই) : এ পোকার কীড়া পাতা খেয়ে ফেলে। এ জন্য ফলন ও গাছের বৃদ্ধি ব্যাহত হয়।
 দমন ব্যবস্থা: 
পাতার ছোট সুড়ঙ্গ পোকা (সাইট্রাস লিফমাইনার) দমন ব্যবস্থাঃ গাছে নতুন পাতা গজানোর সময় রগর/রক্সিয়ন/পারফেকথিয়ন ৪০ ইসি ২ মি.লি. অথবা সুমিথিয়ন ৫০ ইসি ১ মি.লি. প্রতি লিটার পানিতে মিশিয়ে ১৫ দিন পর পর ২ বার স্প্রে করতে হয়।
লেবুর প্রজাপতি পোকা (লেমন বাটারফ্লাই) দমন ব্যবস্থাঃ ডিম ও কীড়াযুক্ত পাতা সংগ্রহ করে মাটির নীচে পুঁতে বা পুড়িয়ে ফেলতে হয়। সুমিথিয়ন ৫০ ইসি/লিবাসিড ৫০ ইসি ২ মিলিলিটার প্রতি লিটার পানিতে মিশিয়ে ১০-১৫ দিন পর পর প্রয়োগ করতে হয়।

 সার ব্যবস্থাপনা

সারের নাম গাছের বয়স(বছর)
১-২ ৩-৪ ৫-১০ ১০ বছর এর উর্দ্ধে
গোবর (কেজি) ৭-১০ ১০-১৫ ২০-২৫ ২৫-৩০
ইউরিয়া (গ্রাম) ১৭৫-২২৫ ২৭০-৩০০ ৫০০-৬০০ ৬০০-৭০০
টিএসপি (গ্রাম) ৮০-৯০ ১৪০-১৭০ ৪০০-৪৫০ ৪৫০-৫০০
এমওপি(গ্রাম) ১৪০-১৬০ ৪০০-৫০০ ৫০০-৫৫০ ৬০০-৬৮০

প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞের সাথে কথা বলুন।

We will be happy to hear your thoughts

Leave a Reply

শখের কৃষি
Logo
Reset Password
Shopping cart