বারি জলপাই-১

বারি জলপাই-১

বৈশিষ্ট্য : জলপাই একটি দীর্ঘজীবি চিরহরিৎ উদ্ভিদ। এ ফলটি সরাসরি ভক্ষণ ছাড়াও এ থেকে জ্যাম, জেলি, চাটনি আচাড় তৈরী করা যায়। জলপাইয়ের তেল মাসাজ অয়েল, প্রলেপ ও রোচক হিসাবে ব্যবহৃত হয়।
উপযোগী এলাকা  : বাংলাদেশের সর্বত্রই জলপাই জন্মে থাকে। তবে কুমিলস্না, নোয়াখালী, সিলেট, পার্বত্য চট্রগ্রাম, গাজীপুর, টাঙ্গাইল ও রাজশাহী এলাকায় বেশী উৎপন্ন হয়।
বপনের সময়  : সাধারণত জুন থেকে আগস্ট মাস পর্যমত্ম চারা লাগানোর উত্তম সময় তবে যদি সেচ সুবিধা থাকে তাহলে সারা বছরই চারা লাগানো যায়।
মাড়াইয়ের সময়:  নভেম্বর থেকে ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত জলপাই আহরণ করা হয় যখন অন্যান্য দেশীফল তেমন একটা পাওয়া যায়না এবং এটি একটি রপ্তানিযোগ্য ফলএবং খুব সহজে চাষ করা যায় বিধায় এর বাণিজ্যিক চাষাবাদের প্রচুর সম্ভবনা রয়েছে।
ফলন: গাছ প্রতি ফল ১৯০০-২০০০টি। ১৫-২০ টন/হেক্টর (৬ বছরের গাছ)

 রোগবালাই ও দমন ব্যবস্থা

 রোগবালাই: জলপাইএর উদ্ভাবিত জাতটিতে প্রধান প্রধান রোগ বালাই-এর আক্রমণ অত্যন্ত কম। তবে সুটিমেল্ড-এর কিছুটা আক্রমন দেখা যায়
 দমন ব্যবস্থা: আক্রান্ত গাছে ০.২% ভেজানোপযোগী সালফার বা ০.২% থিওভিট স্প্রে করতে হবে। আগাছা, রোগাক্রান্ত অংশ ধ্বংস করতে হবে।

 পোকামাকড় ও দমন ব্যবস্থা

 পোকামাকড়: তেমন কোন পোকা মাকরের আক্রমন পরিলক্ষিত হয় না।
 দমন ব্যবস্থা: 

 সার ব্যবস্থাপনা

সারের নাম গাছের বয়স(বছর)
১-৩ ৪-৬ ৭-১০ ১০ এর উর্দ্ধে
জৈব সার (কেজি) ১০-১৫ ১৫-২০ ২০-৩০ ৩০-৪০
ইউরিয়া (গ্রাম) ৩০০-৪০০ ৪০০-৬০০ ৬০০-৮০০ ১০০০
টিএসপি (গ্রাম) ৩০০-৪০০ ৪০০-৬০০ ৬০০-৮০০ ১০০০
এমপি(গ্রাম) ৩০০-৪০০ ৪০০-৬০০ ৬০০-৮০০ ১০০০

প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞের সাথে কথা বলুন।

We will be happy to hear your thoughts

Leave a Reply

Logo
Reset Password
Compare items
  • Total (0)
Compare
0