গমের বিভিন্ন ধরনের জাতঃ বারি গম-২৫, বারি গম-২৬

বারি গম-২৫

গম গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট কর্তৃক উদ্ভাবিত বারি গম ২৫ একটি উচ্চ ফলনশীল লবণাক্ততা সহিষ্ণু এবং তাপ সহিষ্ণু গমের জাত। জাতটি ২০১০ সালে জাতীয় বীজ বোর্ড কর্তৃক দেশের সকল অঞ্চলে চাষাবাদের জন্য অবমুক্ত করা হয়। এ জাতটি একটি কৌলিক সারি হিসেবে আঞ্চলিক নার্সারির মাধ্যমে এদেশে পরীক্ষার জন্য নিয়ে আসা হয়। কৌলিক সারিটি বি এ ডব্লিউ ১০৫৯ নামে বিভিনড়ব নার্সারিতে ও ফলন পরীক্ষায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়। বিভিন্ন গবেষণা কেন্দ্রে ও মাঠ পর্যায়ে ফলন পরীক্ষায় এ সারিটি উচ্চ ফলনশীল বলে প্রমাণিত হয়। চার-পাঁচটি কুশি বিশিষ্ট এ জাতের গাছের উচ্চতা ৯৫-১০০ সেন্টিমিটার। শীষ লম্বা এবং প্রতি শীষে দানার সংখ্যা ৪৫-৫৫টি দানার রং সাদা, চকচকে ও আকারে বেশ বড় (হাজার দানার ওজন ৫৪-৫৮ গ্রাম) জাতটি পাতার দাগ রোগ সহনশীল এবং মরিচা রোগ প্রতিরোধী এবং তাপসহিষ্ণু। জাতটি মধ্যম মাত্রার লবণাক্ততা (৮-১০ ডিএস/মি) সহিষ্ণু। উপযুক্ত পরিবেশে হেক্টরপ্রতি ফলন ৩৮০০-৫২০০ কেজি। জাতটি লবণাক্ততা সহিষ্ণু হাওয়ায় দক্ষিণাঞ্চলে মাধ্যম মাত্রার লবণাক্ত (৮-১০ ডিএস/মি) এলাকাসহ দেশের সর্বত্র আবাদের জন্য উপযোগী। চারা অবস্থায় কুশিগুলো কিছুটা হেলানো (Semi-erect) থাকে। গাছের রং হালকা সবুজ। উপরের কান্ডের গিরায় খুবই রোম (Hair) থাকে। নিশান পাতা বেশ চওড়া ও হেলানো থাকে। শীষে, কান্ডে এবং নিশান পাতার খোলে মোমের মত মাঝারী ঘন আবরণ (Glancosity) থাকে। স্পাইকলেটের নিচের গ্লমের ঘাড় সরু ও হেলানো (Snoopy), ঠোঁট ছোট (< ৫ মিলিমিটার) এবং ঠোঁটে অনেক কাঁটা থাকে।

বারি গম-২৫

বারি গম-২৫

বারি গম-২৬

গম গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট কর্তৃক উদ্ভাবিত বারি গম ২৬ একটি উচ্চ ফলনশীল তাপ সহিষ্ণু গমের জাত। জাতটি ২০১০ সালে জাতীয় বীজ বোর্ড কর্তৃক দেশের সকল অঞ্চলে চাষাবাদের জন্য অবমুক্ত করা হয়। তিনটি বিদেশি গম জাতের মধ্যে সংকরায়ণের মাধ্যমে এ জাতটি উদ্ভাবন করা হয়। বিভিনড়ব প্রজন্মে বাছাইয়ের পর এ জাতের কৌলিক সারিটি নির্বাচন করা হয়। কৌলিক সারিটি বিভিনড়ব নার্সারিতে ও ফলন পরীক্ষায় উচ্চ ফলনশীল প্রমাণিত হওয়ায় বি এ ডব্লিউ ১০৬৪ নামে কৌলিক সারিটি নির্বাচন করা হয়। বিভিনড়ব গবেষণা কেন্দ্রে ও মাঠ পর্যায়ে ফলন পরীক্ষায় এ কৌলিক সারিটি ভাল বলে প্রমাণিত হয়। পাঁচ-ছয়টি কুশি বিশিষ্ট। গাছের উচ্চতা ৯২-৯৬ সেন্টিমিটার। শীষ মাঝারী এবং প্রতি শীষ দানার সংখ্যা ৪৫-৫০টি। দানার রং সাদা,চকচকে ও আকারে বড় (হাজার

দানার ওজন ৪৮-৫২ গ্রাম)। জাতটি পাতার দাগ রোগসহনশীল এবং মরিচা রোগ প্রতিরোধী। তাছাড়াও বারি গম ২৬ জাতটি কান্ডের মরিচা রোগের UG 99 race  প্রতিরোধী। জাতটি তাপসহিষ্ণু তাই দেরিতে বপনেও ভাল ফলন দেয়। উপযুক্ত পরিবেশে হেক্টরপ্রতি ফলন ৪০০০-৫৫০০ কেজি। জাতটি গমের ব্লাস্ট রোগে সংবেদনশীল হওয়ায় দেশের উত্তর এবং উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে আবাদের জন্য উপযোগী।

চারা অবস্থায় কুশিগুলো হেলানো (Intermediate) থাকে। গাছের রং হালকা সবুজ। উপরের কান্ডের গিরায় প্রচুর রোম (Hair) থাকে। নিশান পাতা চওড়া ও হেলানো থাকে। শীষে, কান্ডে এবং নিশান পাতার খোলে মোমের মত মাঝারী ঘন আবরণ (Glancocity) থাকে। স্পাইকলেটের নিচের গ্লম্মের ঘাড় মাঝারী চওড়া ও খাঁজ কাটা, ঠোঁট লম্বা (> ১৫ মিলিমিটার) এবং ঠোঁটে অনেক কাঁটা থাকে। এ জাতটিতে নিশান পাতার অগ্রভাগে নেক্রেসিস দেখা যায়, যা পাতার মরিচা রোগ প্রতিরোধ সনাক্তকারী বৈশিষ্ট বিদ্যমান।

বারি গম-২৬

বারি গম-২৬


সুত্রঃ কৃষি প্রযুক্তি হাতবই 
বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট


We will be happy to hear your thoughts

Leave a Reply

শখের কৃষি
Logo
Reset Password
Shopping cart