কেন ড্রিপ ইরিগেশন করবেন?

কৃষক আর কৃষিকে বাচাঁতে বাংলাদেশে সোলার ড্রিপ ইরিগেশনের আর কোন বিকল্প নেই। যে হারে ডিজেল, শ্রমিক আর সারের দাম বেড়েছে তাতে সনাতন কৃষি পদ্বতি অবলম্বন করলে কৃষক বাচঁবে না। আধুনিক কৃষির অন্যতম একটি পদ্বতি হল সোলার ড্রিপ ইরিগেশন সিস্টেম। ছাদ বাগানীদের জন্যেও এটি খরচ ও সময় দুটোই বাচাঁতে পারে। তাই ড্রিপ ইরিগেশনের মাধ্যমে বাংলাদেশের কৃষিতে হতে পারে একটি যুগান্তকারী পরিবর্তন।

কেন ড্রিপ ইরিগেশন করবেনঃ
১। ড্রিপ ইরিগেশন পদ্বতিতে চাষ করলে ৭০% সেচের পানি সাশ্রয় হয়। ডিজেল এর যে আকাশচুম্বী দাম আর বিদ্যুৎ এর যে অবস্থা তাতে সেচ খরচ বাঁচানোর জন্য ড্রিপ ইরিগেশন সিস্টেম স্থাপন করা সময়ের দাবি।

২। ড্রিপ ইরিগেশন সিস্টেমে যেহেতু অটোমেটিক ভাবে প্রতিটি গাছের গোড়ায় পানি চলে যায়, তাই সেখানে কোন শ্রমিকের দরকার হয় না।এটি অটোমেটিক কন্ট্রোলার এর মাধ্যমে বিকাল বা সন্ধায় প্রয়োজনমত সময় সেটিং করে গাছে পানি দেওয়া যায়।

৩। ড্রিপ ইরিগেশনের ক্ষেত্রে আগাছা জন্মানোর প্রবনতা কম থাকে। কারণ পানি ফোটায় ফোটায় শুধু গাছের গোড়ায় পড়ে, বিধায় অন্য জায়গাগুলোর মাটিতে সার ও জ্বো না থাকায় আগাছা জন্মাতে পারে না । এই জন্য আগাছা দমনে কোন ধরনের কিটনাশক বা শ্রমিকের প্রয়োজন হয় না।

৪। ড্রিপ ইরিগেশনে ৫০% সার কম লাগে, কারন ড্রিপ ইরিগেশনে প্রয়োজনীয় সার রিজার্ভ ট্যাংকিতে দিলে প্রতিটি গাছের গোড়ায় চলে যায় যার কারনে সার অপচয় হয় না। তবে আবশ্যই সারগুলো পানিতে মিশিয়ে দিতে হবে।

ড্রিপ ইরিগেশনের যে সকল যন্ত্রপাতি প্রয়োজন:
১। রিজার্ভ পানির ট্যাংকি একটি।
২। সোলার পাম্প একটি।
৩। ৬ মিলি/ ৮ মিলি/ ১০ মিলি ড্রিপ ইরিগেশন পাইপ।
৪। অটো কন্ট্রোলার একটি।
৫। ফিটিং ও ড্রিপ নজেল, স্প্রিলিংকার ইত্যদি প্রয়োজন মত।

আমরা গোপালগন্জ জেলার মুকসুদপুর উপজেলায় ৩০ শতাংশ জমিতে এই ড্রিপ ইরিগেশন সিস্টেমটি স্থাপন করেছি,
ধন্যবাদ আমাদের সাথেই থাকবেন।

Source

Tags:

We will be happy to hear your thoughts

      Leave a Reply

      Logo
      Reset Password
      Compare items
      • Total (0)
      Compare
      0